অ্যালেন গিন্সবার্গ এর কবিতা সংগ্রহ

অরুণ মিত্র

কবি এবং কাব্য বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে আলোড়ন তুলেছিল। সেই কবির নাম অ্যালেন গিন্সবার্গ, তিনি একজন মার্কিন কবি। কবিদের চোখে অন্যায়, বৈষম্য সবসময়ই বিদ্রোহী মাত্রায় উঠে আসে। তা থেকে ব্যতিক্রম নন গিন্সবার্গ ও তার কবিতা। অ্যালেন গিন্সবার্গও বাংলাদেশের মানুষের দুর্দশায় সক্রিয় ভূমিকা রাখেন।

তিনি কলমকেই অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করেন। বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের ওপর তিনি লিখেছিলেন একটি দীর্ঘ কবিতা। কবিতাটির নাম ছিল, ‘সেপ্টেম্বর অন যশোর রোড’। তার সেই কবিতা সর্বকালের সেরা কবিতার একটি হয়ে আজো বেঁচে আছে। তার কবিতাটি ছুঁয়ে যায় হাজারও মানুষের হৃদয়। নিপীড়িত মানুষের হাহাকার মেশানো, যুদ্ধের বাস্তবচিত্র কবিতার অক্ষরে অক্ষরে জানান দিয়ে যায় বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের দৃশ্য। তার কবিতা শুনে ও পড়ে অশ্রুসজল হয়ে পড়েন হাজারও মানুষ। বাংলাদেশের পক্ষে একাত্দ হয়ে ওঠেন বিশ্বের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা অগণিত সাহিত্যপ্রেমিক।

তার কবিতাটির কয়েকটি লাইন এখনো অনেকের মুখে মুখে চলে আসে। ‘মিলিয়নস অফ সোলস নাইন্টিন সেভেন্টিওয়ান, হোমলেস অন যশোর রোড আন্ডার গ্রে সান, আ মিলিয়ন আর ডেড, দ্য মিলিয়নস হু ক্যান, ওয়াক টুওয়ার্ড ক্যালকাটা ফ্রম ইস্ট পাকিস্তান’। কবিতার ইস্ট পাকিস্তান বা পূর্ব পাকিস্তানই হলো বর্তমান বাংলাদেশ। তার এই কবিতার সূত্র ধরেই বিখ্যাত বাঙালি গায়িকা মৌসুমী ভৌমিক কবিতাটির কিছু অংশ বাংলায় অনুবাদ করে তৈরি করেছেন তার ‘যশোর রোড’ গানটি। গানটি যেমন জনপ্রিয় হয়ে ওঠে সবার কাছে, তেমনি তারেক মাসুদের প্রামাণ্যচিত্রে এর উপস্থাপনও হয়ে ওঠে মুক্তিযুদ্ধের দুর্দান্ত উপস্থাপনা। ডকুমেন্টারি ফিল্ম হিসেবে সেই প্রামাণ্যচিত্রটি এখনো বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকালীন চিত্রায়ণের অসামান্য দলিল হয়ে আছে। সবশ্রেণীর দর্শকদের কাছেই এটি বেশ প্রশংসিত হয়। অ্যানে গিন্সবার্গের একটি কবিতায় একটি ইতিহাস যেন ফুটে উঠেছে অনন্য নৈপুণ্যে।

Back to top button
Close