International

রুশ বিপ্লব – Education BCS Preparation

১৯১৭ সালের ফেব্রুয়ারি বিপ্লব(February Revolution) ও অক্টোবর বিপ্লবের(October Revolution) মাধ্যমে রুশ বিপ্লব(Russian Revolution) সংঘঠিত হয়। এ বিপ্লবের মাধ্যমে একদিকে যেমন একনায়ক জারের পতন ঘটে তেমনি জনগণের সোভিয়েত(কাউন্সিল) এর উত্থান ঘটে। ফেব্রুয়ারি বিপ্লবে দ্বিতীয় নিকোলাস ক্ষমতা হারায় অপরদিকে অন্তর্বতীকালীন সরকার(Provisional Government)ক্ষমতা লাভ করে। দ্বিতীয় বিপ্লব- অক্টোবর বিপ্লবের সময় অন্তর্বতীকালীন সরকারের পতন ঘটে ও সোভিয়েতরা সকল ক্ষমতা লাভ করে।

এই বিপ্লব দুটি নিয়ে নাতিদীর্ঘ আলোচনার আগে নিচের বিষয়গুলো একটু জানা দরকার।

সোভিয়েত কী?

সোভিয়েত(Soviet) একটি রাশিয়ান শব্দ এর ইংলিশ প্রতিশব্দ হল- council বা assembly. আমাদের দেশের যেমন ইউনিয়ন পরিষদ, জেলা বা উপজেলা পরিষদ আছে, সেরকম এক ধরনের পরিষদ হল Soviet. ইউনিয়ন, উপজেলা বা জেলা পরিষদ নির্বাচনের মত তখনকার দিনে রাশিয়াতেও সোভিয়েত নির্বাচন হত। সোভিয়েত নামক পরিষদের সদস্যদেরও সোভিয়েত বলা হত।

পেট্রগার্ড

রাশিয়ার পশ্চিম প্রান্তের একটি শহর। এটি রাশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর- মস্কোর পরে। পেট্রগার্ডের পূর্বের নাম সেইন্ট বিটার্সবার্গ। ১৯১৪ সালে সেইন্ট বিটার্সবার্গ থেকে পেট্রোগার্ড নাম করণ করা হয়। এর দশবছর পরে আবারো শহরটির নাম পরিবর্তন করে লেনিন গার্ড রাখা হয়। সময়ের পরিক্রমায় ১৯৯১ সালে আবার তা বুমেরাং হয়ে সেইন্ট পিটার্সবার্গে ফিরে আসে। এখন পর্যন্ত তা সেইন্ট পিটার্সবার্গেই স্থির আছে। ১৭১৩ থেকে ১৯১৮ সাল পর্যন্ত এই শহরটি রাশিয়ার রাজধানী ছিল। বর্তমান রাজধানী মস্কো। বলাই বাহুল্য যে, রুশ বিপ্লবের সময় শহরটির নাম ছিল পেট্রগার্ড। উল্লেখ থাকে যে রশিয়ার পূর্বাঞ্চলের বৃহত্তম শহর ভ্লাদিভস্টক,

নতুনরীতির তারিখ

খ্রিষ্টপূর্ব ৪৫ সালে জুলিয়ান ক্যালেন্ডারের সূচনা হয়। জুলিয়ান ক্যালেন্ডারে অধিবর্ষের হিসাবে গড়মিল থাকায় সঠিক তারিখ পাওয়া যেত না। তাই এই ত্রুটি সংশোধন করে ১৫৮২ সালে গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডারের প্রচলন ঘটে। জুলিয়ান ক্যালেন্ডার অপেক্ষা গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডার ১৩দিনের অগ্রবর্তী। ১৫৮২ সালে গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডারের প্রচলন ঘটলেও ইউরোপের কিছু কিছু জায়গায় পুরাতন জুলিয়ান ক্যালেন্ডারই ব্যবহার হত। আর রাশিয়াতেও তখন জুলিয়ান তথা পুরাতন ক্যালেন্ডার দেখে তারিখ নির্ণয় করা হত। তাই পুরাতন ক্যালেন্ডার অনুসারে ফেব্রুয়ারির বিপ্লব হয় ২৩ফেব্রুয়ারি, নতুন রীতিতে হয় এর ১৩ দিন পর অর্থাৎ ৪মার্চ। অনুরূপভাবে জুলিয়ান ক্যালেন্ডার অনুসারে অক্টোবর বিপ্লব ঘটে ২৫ অক্টোবর নতুন রীতিতে ৭ নভেম্বর।

জার(Tsar)

অতীতে(১৯১৭ সালের আগে) রাশিয়ার সম্রাটদের পদবি ছিল জার। তাদের শাসন ব্যবস্থাকে বলা হত জারতন্ত্র। জারতন্ত্র বর্তমানের নিরঙ্কুশ রাজতন্ত্রের মত(যেমন সৌদি আরব)। জারতন্ত্রে জাররা সকল ক্ষমতা ও সম্পদের মালিক ছিল।

অন্তর্বতীকালীন সরকার কী?

অন্তর্বতীকালীন সরকার ব্যবস্থা(provisional government) একটি জরুরি সরকার ব্যবস্থা। যা সাধারণত কোন একটি জাতি নিজেদেরকে নতুন রাষ্ট্র হিসাবে প্রতিষ্ঠা করার জন্য গঠন করে। অন্তর্বতীকালীন সরকার গঠনের প্রয়োজন হয় যখন কোন শাসক সেই জাতিকে স্বাধীনতা দিয়ে ক্ষমতা ছেড়ে দিতে চায়(যেমন ইংরেজরা ভারত ও পাকিস্তানকে) অথবা যুদ্ধের সময় বা যুদ্ধের পরে(পাকিস্তান ও বাংলাদেশের ক্ষেত্রে) । অন্তর্বতীকালীন সরকারের নির্দিষ্ট কিছু দায়িত্ব থাকে যেমন তারা সরকার, রাষ্ট্র, রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান, জনগণের মৌলিক অধিকার ইত্যাদির রূপরেখা প্রণয়ন করে। তবে তাদের সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব হচ্ছে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে বিজিত দলের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করা।

বলশেভিক পার্টি

১৯০৫ সালে ভ্লাদিমির লেলিন ও অ্যালেক্সান্ডার বোগদানভ বিপ্লবী শ্রমিকদের নিয়ে বলশেভিক গঠন করেন। ভ্লাদিমির লেলিনের নেতৃত্বে বলশেভিক পার্টি অক্টোবর বিপ্লবেরও নেতৃত্ব দেয়। এই পার্টি বিশ্বের প্রথম স্বঘোষিত সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র সোভিয়েত ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠা করে।

image_pdfDownload Pdfimage_printPrint Article
Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

thirteen − 6 =

Back to top button
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker