কাজলা দিদি

বাঁশ বাগানের মাথার উপর চাঁদ উঠেছে ওই,মাগো আমার শোলক-বলা কাজলা দিদি কই?পুকুর ধারে লেবুর তলে থোকায় থোকায় জোনাক জ্বলেফুলের গন্ধে ঘুম আসে না একলা জেগে রই-মাগো আমার কোলের কাছে কাজলা দিদি কই? সেদিন হতে কেন মা আর দিদিরে না ডাকো;-দিদির কথায় আঁচল দিয়ে মুখটি কেন ঢাকো?খাবার খেতে আসি যখন, দিদি বলে ডাকি তখন,ওঘর থেকে কেন

Read More »

অন্ধ বধূ

পায়ের তলায় নরম ঠেকল কী!আস্তে একটু চলনা ঠাকুর-ঝি —ওমা, এ যে ঝরা-বকুল ! নয়?তাইত বলি, বদোরের পাশে,রাত্তিরে কাল — মধুমদির বাসেআকাশ-পাতাল — কতই মনে হয় ।জ্যৈষ্ঠ আসতে কদিন দেরি ভাই —আমের গায়ে বরণ দেখা যায় ?—অনেক দেরি? কেমন করে’ হবে !কোকিল-ডাকা শুনেছি সেই কবে,দখিন হাওয়া —বন্ধ কবে ভাই ;দীঘির ঘাটে নতুন সিঁড়ি জাগে —শেওলা-পিছল —

Read More »

দ্বিপ্রহরে

বইয়ের পাতায় মন বসেনা, খোলা পাতা খোলাই পড়ে’ থাকে,চোখের পাতায় ঘুম আসেনা—- দেহের ক্লান্তি বুঝাই বলো কা’কে ?কাজের মাঝে হাত লাগাব, কোথাও কোন’ উত্সাহ নাই তার,চেয়ে আছি চেয়েই আছি, চাওয়ার তবু নাইক কিছু আর ! বেলা বাড়ে, রোদ চড়ে’ যায়, প্রখর রবি দহে আকাশ তল,ঝাঁঝাঁ করে ভিতর-বাহির, চোখের পথে শুকায় চোখের জল ;মোহাচ্ছন্ন মৌন জগৎ,

Read More »

অপরাজিতা

পরাজিতা তুই সকল ফুলের কাছে,তবু কেন তোর অপরাজিতা নাম?বর্ণ-সেও ত নয় নয়নাভিরাম |ক্ষুদ্র অতসী, তারো কাঞ্চন-ভাতি ;রূপগুণহীন বিড়ম্বনার খ্যাতি!কালো আঁখিপুটে শিশির-অশ্রু ঝরে—ফুল কহে—মোর কিছু নাই কিছু নাই,ফুলসজ্জায় লজ্জায় যাই নাক,বিবাহ-বাসরে থাকি আমি ম্রিয়মাণ |মোর ঠাঁই শুধু দেবের চরণতলে,পূজা-শুধু-পূজা জীবনের মোর ব্রত ;তিনিও কি মোরে ফিরাবেন আঁখিজলে—

Read More »

যৌবন-চাঞ্চল্য

ভুটিয়া যুবতি চলে পথ;আকাশ কালিমামাখা কুয়াশায় দিক ঢাকা।চারিধারে কেবলই পর্বত;যুবতী একেলা চলে পথ।এদিক-ওদিক চায় গুনগুনি গান গায়,কভু বা চমকি চায় ফিরে;গতিতে ঝরে আনন্দ উথলে নৃত্যের ছন্দআঁকাবাঁকা গিরিপথ ঘিরে।ভুটিয়া যুবতি চলে পথ।টসটসে রসে ভরপুর–আপেলের মত মুখ আপেলের মত বুকপরিপূর্ণ প্রবল প্রচুর;যৌবনের রসে ভরপুর।মেঘ ডাকে কড়-কড় বুঝিবা আসিবে ঝড়,একটু নাহিকো ডর তাতে;উঘারি বুকের বাস, পুরায় বিচিত্র আশউরস

Read More »

অন্ধ বধূ __যতীন্দ্রমোহন বাগচী – বাংলা কবিতা

পায়ের তলায় নরম ঠেকল কী!আস্তে একটু চলনা ঠাকুর-ঝি —ওমা, এ যে ঝরা-বকুল ! নয়?তাইত বলি, বদোরের পাশে,রাত্তিরে কাল — মধুমদির বাসেআকাশ-পাতাল — কতই মনে হয় ।জ্যৈষ্ঠ আসতে কদিন দেরি ভাই —আমের গায়ে বরণ দেখা যায় ?—অনেক দেরি? কেমন করে’ হবে !কোকিল-ডাকা শুনেছি সেই কবে,দখিন হাওয়া —বন্ধ কবে ভাই ;দীঘির ঘাটে নতুন সিঁড়ি জাগে

Read More »

অপরাজিতা __যতীন্দ্রমোহন বাগচী

পরাজিতা তুই সকল ফুলের কাছে, তবু কেন তোর অপরাজিতা নাম? বর্ণ-সেও ত নয় নয়নাভিরাম | ক্ষুদ্র অতসী, তারো কাঞ্চন-ভাতি ; রূপগুণহীন বিড়ম্বনার খ্যাতি! কালো আঁখিপুটে শিশির-অশ্রু ঝরে— ফুল কহে—মোর কিছু নাই কিছু নাই, ফুলসজ্জায় লজ্জায় যাই নাক, বিবাহ-বাসরে থাকি আমি ম্রিয়মাণ | মোর ঠাঁই শুধু দেবের চরণতলে, পূজা-শুধু-পূজা জীবনের মোর ব্রত ; তিনিও কি মোরে

Read More »

কাজলা দিদি – যতীন্দ্রমোহন বাগচী

বাঁশ-বাগানের মাথার উপর চাঁদ উঠেছে ওই,মাগো আমার শোলক্-বলা কাজলা দিদি কই?পুকুর ধারে লেবুর তলে,থোকায় থোকায় জোনাক জ্বলে,ফুলের গন্ধে ঘুম আসে না, একলা জেগে রই,মাগো আমার কোলের কাছে কাজলা দিদি কই? সেদিন হতে কেন মা আর দিদিরে না ডাকো;দিদির কথায় আঁচল দিয়ে মুখটি কেন ঢাকো?খাবার খেতে আসি যখনদিদি বলে ডাকি তখন,ও-ঘর থেকে কেন মা

Read More »

যৌবন-চাঞ্চল্য – যতীন্দ্রমোহন বাগচী – বাংলা কবিতা

বাংলা কবিতা December 15, 2018 যতীন্দ্রমোহন বাগচী 133 Views ভুটিয়া যুবতি চলে পথ;আকাশ কালিমামাখা কুয়াশায় দিক ঢাকা।চারিধারে কেবলই পর্বত;যুবতী একেলা চলে পথ।এদিক-ওদিক চায় গুনগুনি গান গায়,কভু বা চমকি চায় ফিরে;গতিতে ঝরে আনন্দ উথলে নৃত্যের ছন্দআঁকাবাঁকা গিরিপথ ঘিরে।ভুটিয়া যুবতি চলে পথ।টসটসে রসে ভরপুর–আপেলের মত মুখ আপেলের

Read More »